রবিবার , ১৭ মার্চ ২০২৪ | ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. আমাদের পরিবার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. দেশজুড়ে
  7. ধর্ম
  8. ফিচার
  9. বাণিজ্য
  10. বাংলাদেশ
  11. বিনোদন
  12. বিশ্ব
  13. ভিডিও
  14. মুন্সীগঞ্জ
  15. রাজনীতি

ঢাবিতে কোরআন চর্চায় অসুবিধা কোথায়, প্রশ্ন চরমোনাই পীরের

প্রতিবেদক
admin
মার্চ ১৭, ২০২৪ ১০:১৯ পূর্বাহ্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোরআনের ক্লাস নিয়ে যারা বাড়াবাড়ি করছে তাদের থামানোর আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম।

তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোরআন নাজিলের মাসে কোরআন শিক্ষার আসর করলে যাদের গায়ে জ্বালা ধরে এরা মুসলমান নামের পশু। ঢাবিতে আরবি বিভাগ আছে, সেখানে আরবি চর্চা হলে সমস্যা কোথায়? মুসলমানের দানকৃত জায়গায় প্রতিষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে লেলিন, কালমার্কসসহ অন্যান্য ধর্ম চর্চা হতে পারলে কোরআন চর্চায় অসুবিধা কোথায়।’

রোববার (১৭ মার্চ) বরিশালের চরমোনাই মাদরাসায় ১৫ দিনব্যাপী বিশেষ তালিম তারবিয়াতের ৬ষ্ঠ দিনের আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

চরমোনাই পীর বলেন, ‘ঢাবিতে কোরআনের ক্লাস নিয়ে যারা বাড়াবাড়ি করে, তাদের থামান। অন্যথায় ধৈয্যের সীমা আছে, ইসলাম চর্চা নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে ঈমানদার জনতা নীরবে বসে থাকবে না।’

ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, ‘মাহে রমজানের শিক্ষা নিয়ে দেশ গঠনে অবদান রাখতে হবে। রমজান মাস কোরআন নাজিলের মাস। কোরআন নাজিলের কারণেই এ মাসের এত মাহাত্ম্য। মানব জীবনের সফলতা ফিরে পেতে হলে তাকওয়াপূর্ণ সমাজ গঠন করতে হবে। আল্লাহভীরু নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তাকওয়াভিত্তিক সমাজ গঠন করতে হবে। মাহে রমাজন সিয়াম সাধনার মাধ্যমে মানব জাতিকে আল্লাহর রঙে রঙিন হয়ে মানব কল্যাণে ব্রত হওয়ার শিক্ষা দেয়।’

রেজাউল করীম বলেন, ‘যে ব্যক্তি এ মহান মাস পাওয়ার পরও নিজের গুনাহরাশি মাফ করিয়ে আল্লাহর নিকটবর্তী বান্দা হতে পারেনি, রমজান তার জীবনে কোনো প্রভাব ফেলবে না।’

চরমোনাই পীর বলেন, ‘রমজান এলেই একশ্রেণির মানুষ রমজানের প্রতি অসম্মান করতে উঠেপড়ে লেগে যায়। এরা মানুষকে বিভিন্নভাবে কষ্ট য়ে, মজুদদারি করে কষ্ট দেয়, ইফতারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ঈমানদার মানুষকে কষ্ট দেয়। ইফতারের আগে রোজাদার নিরীহ ছাত্রদের রক্তাক্ত করে কষ্ট দেয়। মনে রাখবেন এরা অচিরেই আল্লাহর গজবে পতিত হবে।’

রেজাউল করীম বলেন, ‘ইতিহাস সাক্ষ্য, যারা রোজাদার মানুষকে যেভাবেই হোক কষ্ট দেয়, তারা আল্লাহর আজাব-গজবের অপেক্ষায় আছে।’

ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, ‘রমজান এমন এক মাস যে মাসে খাবারের কোনো হিসাব নেই। অনেক মানুষ রমজান এলে মিতব্যয়িতার ভান ধরে ইফতারের বরাদ্দ বাতিল করে, এরা ইসলাম ও মানবতার দুশমন। অথচ দেশের সম্পদ লুটপাট হয়ে যাচ্ছে, বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে, ব্যাংকে সোনা রাখলে রূপা হয়ে যায়। সেদিকে কারো কোন ভ্রক্ষেপ নেই।’

অনুষ্ঠানে ইসলামী আন্দোলনের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই, চরমোনাই ইউপি চেয়ারম্যান মুফতী জিয়াউল করীম ছাড়াও চরমোনাই দরবারের খলিফারা বয়ান করেন।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে

আপনার জন্য নির্বাচিত

সপরিবারে ওমরাহ পালনে সৌদি আরব গেলেন আলহাজ্ব আজমেরী ওসমান

নারায়ণগঞ্জবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিইছেন সেলিম ওসমান

ডিপফেক ভিডিও করে বিএনপি নেতাদের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ

স্বাধীনতা দিবসে তালাবদ্ধ রাঙ্গামাটির শহীদ মিনার, সিপিবির ক্ষোভ

ব্রাজিলকে বাংলাদেশ থেকে সরাসরি তৈরি পোশাক আমদানির আহ্বান

অটোচালক রাজু হত্যা: পুলিশের পর র‌্যাবের হাতে ২জন আটক

নারায়ণগঞ্জবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিইছেন মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন

‘বিএনপি কুকি-চিনের সঙ্গে মিশে দেশের স্থিতিশীলতা নস্যাতের চেষ্টা করছে’

বিএনপি কুকি-চিনের সঙ্গে মিশে দেশের স্থিতিশীলতা নস্যাতের চেষ্টা করছে

আরও প্রকাশ্যে বিএনপির ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক

আওয়ামী লীগের রংপুর বিভাগীয় মতবিনিময় সভা শনিবার

আওয়ামী লীগের রংপুর বিভাগীয় মতবিনিময় সভা শনিবার