বৃহস্পতিবার , ৯ মে ২০২৪ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. ! Без рубрики
  2. অন্যান্য
  3. অপরাধ
  4. আমাদের পরিবার
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. দেশজুড়ে
  8. ধর্ম
  9. ফিচার
  10. বাণিজ্য
  11. বাংলাদেশ
  12. বিনোদন
  13. বিশ্ব
  14. ভিডিও
  15. মুন্সীগঞ্জ

না.গঞ্জে ১ টি গাছ কাটার বদলে ২০টি গাছ লাগাবে বিআইডব্লিউটিএ

প্রতিবেদক
admin
মে ৯, ২০২৪ ৭:০৫ অপরাহ্ণ

শীতলক্ষ্যা তীরে মাল্টিপারপাস টার্মিনাল নির্মাণের প্রকল্পের জন্য গাছ কাটা নিয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনু্ষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ মে) দুপুরে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের সম্মেলনকক্ষে আলোচনা সভাটি অনু্ষ্ঠিত হয়।

বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ’র অতিরিক্ত চিফ ইঞ্জিনিয়ার ও প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ আইয়ুব আলী, অতিরিক্ত টিফ ইঞ্জিনিয়ার ও ডেপুটি প্রকল্প পরিচালক ফরহাদুজ্জামান, প্রকল্পের পরিবেশ বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের টাউন প্ল্যানার মইনুল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি শাহাদাৎ হোসেন, বিআইডব্লিউটিএ নির্বাহী প্রকৌশলী দিদারুল আলম, নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ পরিচালক মোবারক হোসেন মজুমদার, উপ পরিচালক (নৌ নিট্রা) বাবু লাল বৈদ্য, উপ পরিচালক নাঈম মোহাম্মদ, সিবিএ চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম রানা প্রমুখ। এছাড়াও গাছ কাটা নিয়ে আন্দোলনকারীদের মধ্যে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি ভবানী শংকর রায়, সাবেক সেক্রেটারী ধীমান সাহা জুয়েল, গণসংহতি আন্দোলনের নারায়ণগঞ্জ জেলা সমন্বয়ক তরিকুল সুজন প্রমুখ।

সভায় গাছ কাটা নিয়ে আন্দোলনকারীরা বলেন, আমরা উন্নয়ন প্রকল্পের বিরোধী নই। তবে গাছ না কেটেও উন্নয়ন প্রকল্প করা যায়। আমাদের দাবি ছিল গাছগুলো না কেটে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা। আমরা প্রকল্পের নামে এভাবে নির্বিচারে গাছ কাটার ঘোর বিরোধী। আমরা কখনোই গাছ কাটাকে সমর্থন করিনা।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের টাউন প্ল্যানার মইনুল হোসেন বলেন, শুধু গাছ লাগালেই হবেনা। গাছগুলোর নিয়মিত পরিচর্যাও করতে হবে। প্রকল্পে যাতে গাছগুলোর পরিচর্যার জন্য বরাদ্দ রাখা হয় সেদিকেও লক্ষ্য রাখার অনুরোধ জানান তিনি।

প্রকল্পের পরিচালক মো. আইউব আলী বলেন, আমাদের এই প্রকল্পের জন্য সর্বমোট ৮১টি ছোট বড় গাছ কাটতে হয়েছে। সারাদেশে আমাদের ৫ লাখ গাছ লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে। যার মধ্যে নারায়ণগঞ্জে প্রাথমিকভাবে আমরা চলতি বছরে ৫শ’ গাছ লাগাবো। পরবর্তীতে সর্বমোট ৫ হাজার গাছ লাগাবো। আমরা সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ফলজ, বনজ এবং ঔষধি গাছ লাগাবো। প্রকল্প এলাকাতেও অসংখ্য গাছ লাগানো হবে। এছাড়াও গাছগুলোকে যাতে নিয়মিত পরিচর্যা করা হয় প্রকল্প থেকে সেই বাজেটও রাখা হবে।

সভাপতির বক্তব্যে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা প্রতি বছরই বিআইডব্লিউটিএ’র অধিনস্থ জমিতে বৃক্ষরোপন কার্যক্রম করছি। এই বছরেও আমরা নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উদ্যোগে কমপক্ষে ৫শ’ গাছ লাগাবো। আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি আমাদের এই প্রকল্পে যে কয়েকটি গাছ কাটা পড়বে আমরা তার ২০ গুন গাছ লাগবো। আলোচনা সভা শেষে প্রকল্পের স্থান পরিদর্শন করেন বিআইডব্লিউটিএ’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

সর্বশেষ - রাজনীতি